প্রকৃতির উপহার রঙিন ফল ও সবজি

0
306
প্রকৃতির উপহার রঙিন ফল ও সবজি
প্রকৃতির উপহার রঙিন ফল ও সবজি
Print Friendly, PDF & Email

মৌসুমী ফল ও সবজির পুষ্টি উপাদান দেহকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। বসন্তের দিন প্রায় শেষের দিকে। সূর্যের প্রচন্ড তাপ, দাবদাহের দিনগুলোর আগমনী বার্তা দিচ্ছে। এ সময় নিজেকে সুস্থ, সবল ও নীরোগ রাখতে অন্যান্য ঋতুর চেয়ে বেশি সতর্ক থাকতে হয়। বিভিন্ন বর্ণের ফল ও সবজিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খাদ্যআঁশ যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শক্তির মাত্রাকে সঠিক পরিমাণে রাখতে সাহায্য করে।

সাধারণত রঙের ওপর ভিত্তি করে ফল ও সবজিকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা হয় – নীল বা বেগুনী, সাদা, হলুদ বা কমলা এবং সবুজ।

নীল বা বেগুনী

নীল বা বেগুনী রঙের ফল ও সবজি  যেমন – বেগুন, মিষ্টি আলু, ক্যাপসিকাম, জাম ইত্যাদি। এসব ফল ও সবজিতে আছে প্রচুর পরিমাণে ফাইটো কেমিক্যাল, অ্যানথোসায়ানিন, ফিনোলিক্স, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি এইজিং ফ্যাক্টর।

উপকা্রীতা

ফলে কিছু কিছু ক্যান্সার প্রতিরোধ করে, মূত্রনালীর সুস্থতা বজায় রাখে, স্মৃতিশক্তি ধরে রাখে এবং বয়সের ছাপ সহজে পড়তে দেয় না।

লাল রঙের ফল

লাল রঙের ফল ও সবজি যেমন – তরমুজ, লাল আপেল, কমলা, চেরি, স্ট্রবেরি, বিট, লাল টমেটো ইত্যাদি।

উপকারীতা-

হৃত্‍পিন্ডের সুস্থতা, স্মৃতিশক্তি রক্ষা, কিছু কিছু ক্যান্সার প্রতিরোধ এবং মূত্রনালীর সুস্থতা বজায় রাখতে সাহায্য করে।

গাঢ় সবুজ

গাঢ় সবুজ রঙের ফল ও সবজি যেমন – আম, পেয়ারা, জাম্বুরা, জামরুল, আমলকী, বড়ই, বেল, ডাব, তরমুজ, সবুজ আপেল,  গেন্ডারি, ক্যাপসিকাম, পালং শাক, পুই শাক, কাচকলা, কহি, ডাটা, ঝিঙ্গা, লাউ, বরবটি, কাকরোল, ভেন্ডি, পটল, করলা, শসা, বাধাকপি, মটরশুটি, শিম ইত্যাদি।

উপকারীতা-

গাঢ় সবুজ রঙের ফল ও সবজি গ্রহণ ক্যান্সার প্রতিরোধ করে, রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে, দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়, হাড় ও দাঁতের সুস্থতা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সাদা রঙের-

সাদা রঙের ফল ও সবজি যেমন – সাদা পিচ, জামরুল, লিচু, ফুলকপি, রসুন, আদা, মাশরুম, আলু, সাদা কর্ণ ইত্যাদি।

উপকারীতা-

সাদা রঙের ফল ও সবজি দেহে সজীবতা আনে, রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা কমায় এবং কিছু কিছু ক্যান্সারও প্রতিরোধ করে।

হলুদকমলা

হলুদ বা কমলা রঙের ফল ও সবজি যেমন – আঙুর, লেবু, পাকা পেঁপে, আনারস, মিষ্টি কুমড়া, গাজর, কমলা, কলা, বাঙ্গি ইত্যাদি। এগুলোতে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, ক্যারোটিন এবং ফাইটো কেমিক্যাল।

উপকারীতা-

যা হৃদরোগ দূরে রাখে, দৃষ্টিশক্তি প্রখর করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এছাড়াও এগুলো ক্যান্সার প্রতিরোধক।

প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় কমপক্ষে পাঁচ ধরনের ফল ও সবজি  রাখা উচিত। কারণ ফল ও সবজিতে রয়েছে প্রচুর খাদ্যআঁশ যা শরীরকে রাখে সুস্থ ও কর্মক্ষম। মনে রাখতে হবে, শরীর সুস্থ্য রাখতে হলে শিশুকাল থেকেই পর্যাপ্ত পরিমানে বিভিন্ন ধরণের শাক-সবজি খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

আরও জানুন » পেটের মেদ কমানোর ৫ টি কার্যকরী পরামর্শ »

Comments

comments