নিগূঢ় কথিকা

0
87
নিগূঢ় কথিকা বর্ণা আহমেদ
Print Friendly, PDF & Email

নিগূঢ় কথিকা

বর্ণা আহমেদ

দেখতে দেখতে পার করে দিলেম জীবনের বিশটি বছর

এ আমার বয়স নয়,

আমাদের বিবাহের বয়স।

কখনো ভালবাসায় … কখনো বা সংসারের মায়ায়,

কখনো হতাশা ক্রোধ কষ্টে

কখনো বা নিস্পৃহতা, অনুশোচনায়।

মেঘেদের আনাগোনা ছিল নিরন্তর

বজ্রপাতের আশঙ্কায় বয়ে গেছে বৃষ্টির ঢল,

তবু থামেনি চলা …

ভাঙাচোরা সড়কের অন্তে ছিল রামধনুর মায়া।

এখন অবসাদ গ্রাস করেছে …

একঘেয়েমি এই জীবন দুর্বলস্নায়ু বির্মষ আজ,

এত কাছাকাছি দু’জন

তবুও নিঃসঙ্গতা বড় আপন।

এত কিছুর পরেও কোথায় যেন একটা প্রশান্তি,

আস্হা আর বিশ্বাসের পাশাপাশি

বাস করে ভালবাসার দাবী।

তোমাতেই খুঁজি আমি আমার দিন

আমার বিমল মায়া।

সকালের মিষ্টি আলোয় ভাল লাগে চায়ের চুমুক …

আর মেঘেদের ভেসে যাওয়া।

আরও জানুন » বৈশাখ সাজ »

কবি বর্ণা আহমেদের জন্ম চট্টগ্রামে, তবে ঢাকায় শৈশব ও কৈশোর। লেখালেখির শুরু গান, কবিতা ও ছোটগল্প দিয়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এম. এ. করার পরপরই বিবাহিত জীবনের সূত্র ধরে যুক্তরাজ্যে বসবাসের শুরু। সাহিত্য ও কাব্যচর্চা তাঁর দুর্বলতা, সাংসারিক ও পেশাগত জীবনের বিভিন্ন ব্যস্ততার মাঝেও লেখার জন্য একটু সময় খুঁজে নেয়ার আপ্রাণ চেষ্টা রেখেছেন অব্যাহত। লেখার মাঝেই নিজেকে বাস্তবতা থেকে সরিয়ে নিয়ে বিভিন্ন চরিত্রের মাঝে বিলীন করে দিয়ে অন্য এক নিজের প্রতিচ্ছবি দেখতে পান। আর তাই কিছু সময়ের জন্য হলেও কোন ব্যতিক্রম অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হওয়ার এক সুপ্ত কৌতুহল ও আনন্দের আপ্রাণ চেষ্টার প্রতিফলন ফুটে উঠে তাঁর লেখায়। বাংলা একাডেমী ইউ কে-এর প্রকাশিত আমাদের কাব্য ও সুফিয়ান প্রকাশনীর অনিরুদ্ধ সংকলনে কবিতা প্রকাশ করেছেন। এছাড়া নিয়মিত কবিতা প্রকাশ করেন বিভিন্ন ব্লগে।

দৈনন্দিন জীবনে আলাপী, অতিথিপরায়ন। স্কুলে শিক্ষকতা করেন। গান গাইতে ভালোবাসেন।

Comments

comments