মোবাইল চার্জ হবে কোন বিদ্যুৎ ছাড়াই

0
791
মোবাইল চার্জ হবে কোন বিদ্যুৎ ছাড়াই
বিদ্যুৎবিহীন মোবাইল চার্জার
Print Friendly, PDF & Email

বিদ্যুৎ না থাকলেও বাংলাদেশের প্রত্যন্ত গ্রামগুলিতে বাড়ছে মোবাইল ফোনের ব্যবহার, কিন্তু গ্রামবাসীরা মহা সমস্যায় পড়েছেন বিদ্যুৎ ছাড়া মোবাইল চার্জ করার ক্ষেত্রে। তবে এবার বগুড়ার জেলার শিক্ষার্থীরাই আবিষ্কার করেছেন বিদ্যুৎবিহীন মোবাইল চার্জার।

গ্রামীণ জনপদে অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ নেই। তারপর ও মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা কোটি পার হয়েছে। খুব সহজে দূরে থাকা কাছের মানুষটির সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব বল্, গ্রাম অঞ্চলের ৮০ ভাগ মানুষই মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে। তবে বিদ্যুৎ না থাকায় মোবাইল ফোনের ব্যাটারিতে চার্জ দিতে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে তাদের। তারপরও মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা কমছে না।

বগুড়ায় বাংলাদেশ ইনিষ্টিটিউট অফ ইনফরমেশন নামের একটি বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কয়েকজন শিক্ষার্থী মিলে আবিষ্কার করলেন বিদ্যুতবিহীন মোবাইল চার্জার। যেসব এলাকায় এখনও বিদ্যুৎ পৌঁছায়নি সেসব এলাকার মানুষ এই মেশিনটি ব্যবহার করতে পারবেন। এতে এক দিকে যেমন বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে অন্য দিকে অর্থের অপচয় কমবে। দীর্ঘ এক বছর ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গবেষণাগারে তিন শিক্ষার্থী গবেষণা চালিয়ে বিদ্যুৎবিহীন মোবাইল চার্জারটি আবিষ্কার করেছেন। এই চার্জারটির মাধ্যমে মোবাইলের ব্যাটারি কিংবা ল্যাপটপ চার্জ করা সম্ভব। এমনি জানালেন আবিষ্কারের সাথে জড়িত এক শিক্ষার্থী –

“এটা একটি বিদ্যুৎবিহীন চার্জার, এটাতে আমরা মিনি হ্যান্ড জেনারেটর ব্যবহার করেছি, যেটা হুইলের মাধ্যমে ঘুরানো যায়, এটাতে একটা ব্যটারী রিজার্ভার আছে যেটাকে আমরা হুইলের মাধ্যমে ঘুরানোর মাধ্যমে চার্জটাকে ব্যাটারিতে রিজার্ভ করব। তারপর যখন আমাদের প্রয়োজন হবে তখন আমরা মোবাইল চার্জারের মাধ্যমে চার্জ করতে পারব। ল্যাপটপও প্রয়োজনে চার্জ করতে পারব। এটার আরেকটা বড় সুবিধা হচ্ছে এটা সব সময় ব্যবহার করতে পারব। এটাতে সোলারের মতো সূর্যের আলোর প্রয়োজন নেই, তাই এটা দিনে রাতে সব সময় ব্যবহার করা যাবে।”

আবিষ্কারটি ছোট হলেও প্রয়োজনের শীর্ষে রয়েছে মোবাইল ফোন। আর এটির চার্জার তাও বিদ্যুৎবিহীন, আর একারণে সরকারী অথবা বেসরকারী কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহযোগীতা পেলে বিদ্যুৎবিহীন চার্জারটির সুফল মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়া সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ইনিষ্টিটিউট অফ ইনফরমেশনের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ সাহাবুদ্দিন সৈকত, তিনি বলেন-

“আমরা জানি, আমাদের দেশে অনেক এলাকায় এখনো বিদ্যুতের ছোয়া নেই। সেখানে গ্রাহকরা বা যারা জনগণ আছেন, সেখানে যদি মোবাইল বা ল্যাপটপ ব্যবহার করতে চান, সে প্রেক্ষাপটে দেখা যায় তারা সে তুলনায় চার্জ করতে পারছে না। আর এই সমস্যার কথা চিন্তা করে আমাদের শিক্ষার্থীরা একটি বিদ্যুৎবিহীন চার্জার আবিষ্কার করেছে। যেটা খুবই স্বল্পমূল্যে মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দেয়া সম্ভব এবং সরকারী বা বেসরকারী কোনো সহযোগীতা পেলে আমরা অবশ্যই খুব স্বল্পমূল্যে এটা মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারব।”

 

সূত্র: ডিডাব্লিউ

আরও জানুন » ব্ল্যাকবেরির নতুন $২৭৫ মূল্যের স্মার্টফোন লিপ »

Comments

comments