স্বপ্নজাল ছবির জয়ধ্বনি

0
72
স্বপ্নজাল ছবির জয়ধ্বনি
স্বপ্নজাল
Print Friendly, PDF & Email

মনপুরার পর গিয়াস উদ্দিন সেলিম এর স্বপ্নজাল ছবিটি যেন আবারো বাংলা মুভি ইন্ডাস্ট্রির জন্য সুবাতাস বয়ে আনলো। গত বছরের সুপারহিট ছবি ঢাকা অ্যাটাক এর পর তেমন কোন ছবিই দর্শকদের মনে জায়গা করতে পারেনি। বাংলাদেশের মানুষ অত্যান্ত বিনোদন প্রেমী। হল-এ কোনো ভালো ছবি চললে সেটা দেখার জন্য মানুষ হুমড়ি খেয়ে পরে। তেমনটাই দেখা গেল স্বপ্নজাল ছবির মুক্তির দিন। বিশাল লাইনে দারিয়ে টিকেট সংগ্রহ করতে দেখা গেছে প্রায় প্রত্যেকটি হলেই। মনে হলো, একটা ভালো গল্পের ছবি দেখার জন্য মুখিয়ে ছিল সবাই।

দর্শকদের আশার ১০০ ভাগই পূরণ করতে সক্ষম হয়েছে এই ছবিটি। ছবি প্রদর্শনের শেষে দর্শকদের অনুভুতি বা ছবির ব্যাপারে জানতে চাইলে সবাই খুব প্রসংশা করেছে। আবার অনেককেই অশ্রুসিক্ত চোখে বের হতে দেখা গেছে। এখানে বলা যায় গল্পকার ও পরিচালক পুরোপুরি সার্থক। তারা যে গল্প শুনাতে চেয়েছেন দর্শক তা স্বাদরে গ্রহণ করেছেন।

দেশের প্রেক্ষাগৃহে গত ৬ এপ্রিল মুক্তি পেয়েছে গুণী নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিমের স্বপ্নজাল। সাধারণ দর্শকেরা দেখার আগে গত ৫ এপ্রিল রাতে ছবিটির একটি প্রিমিয়ার শোর আয়োজন করা হয়।

ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি দেখতে হাজির হয়েছিলেন আমন্ত্রিত অতিথি, গণমাধ্যমের কর্মী ও ছবির কলাকুশলীরা। ছবি দেখতে আসা দর্শকদের প্রায় সবাই মুগ্ধতা নিয়ে প্রেক্ষাগৃহ থেকে বের হয়েছেন। তাঁদের বেশির ভাগের মন্তব্য, বহুদিন পর অসাধারণ একটা ছবি দেখলাম। পুরো কৃতিত্ব নির্মাতার।ছবিতে কার অভিনয় কেমন ছিলো তা দর্শকদের জিজ্ঞাস করা হয়েছিল। তাদের কাছে ফজলুর রহমান বাবুর অভিনয় ছিলো দুর্দান্ত। তবে পরীমনির সাবলীল অভিনয় দর্শকদের অবাক করেছেন। এ যেন এক নতুন পরীমনিকে দেখল সবাই। রোশন নবাগত হিসেবে খুবই ভালো করেছে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার এলাকায় ডাকাতিয়া নদীর পারে একটি বাড়িতে স্বপ্নজাল ছবির শুটিং শুরু হয়। প্রথমেই ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান পরীমনি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন ইয়াশ রোহান এবং আরও কয়েকজন শিল্পী।

গিয়াস উদ্দিন সেলিমের মনপুরা ছবিটি পরীমনি দেখেছেন নয়বার। প্রেক্ষাগৃহে বসে এমন একটি ছবিতে অভিনয়ের স্বপ্নও দেখতেন। কিন্তু সেই স্বপ্ন যে সত্যি হবে, তা তিনি ভাবতেও পারেননি। আর আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে ছবিটি দেখার পরপর আবেগ ধরে রাখতে না পেরে অনেকক্ষণ কেঁদেছেন।

সৈকত হাসান রানা সদা হাস্যোজ্জল একজন মানুষ যিনি লিখতে ও গান শুনতে পছন্দ করেন।

Comments

comments