দাঁত ঝকঝকে ও সাদা করার প্রাকৃতিক ৯ টি উপায়

0
5467
দাঁত ঝকঝকে ও সাদা করার প্রাকৃতিক ৯ টি উপায়
দাঁত ঝকঝকে ও সাদা করার প্রাকৃতিক ৯ টি উপায়
Print Friendly, PDF & Email

প্রিয়জন কাছে সবাই সুন্দর হতে চাই। মানুষ যখন হাসে তখন তাকে সবচেয়ে সুন্দর দেখায়। এরকম মুক্তা ঝরানো হাসির জন্য চাই সুন্দর, পরিষ্কার, দুর্গন্ধমুক্ত ও ঝকঝকে সাদা দাঁত। আর ঝকঝকে সাদা দাঁত হাসির আকর্ষণ অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। তাই যারা অতিরিক্ত চা-কফি, ধূমপান করেন কিংবা ঠিক মত দাঁত পরিষ্কার করেন না তাদের দাঁত লালচে বা হলদেটে হয়ে যায়। তাই কয়েকটি চমৎকার প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে ঘরোয়া উপায়েই খুব সহজেই আপনার দাঁতগুলোকে ঝকঝকে সাদা করতে পারবেন। আসুন জেনে নেই উপায়গুলো সম্বন্ধে-

১. ফল ফলাদি

আপেল, স্ট্রবেরিতে রয়েছে ম্যালিক অ্যাসিড যা দাঁতকে সাদা করে। স্ট্রবেরির মধ্যে আছে ব্লিচিং উপাদান যা দাঁতের হলদেটেভাব দূর করে দাঁত ঝকঝকে করে তুলে। স্ট্রবেরি ঘষে নিয়ে বা পেস্ট করে মুখের ভিতর দাঁতের উপর ভালোভাবে ছড়িয়ে লাগিয়ে নিতে হবে। এসব চমৎকার প্রাকৃতিক উপাদান গুলো নিয়মিত খেলে দাঁতে সহজে হলদে হয় না।

২. লেবু ও কমলার খোসা-

দাঁত সাদা করার আরও একটি সহজ উপায় হল লেবু বা কমলার খোসা ব্যবহার। লেবু ও কমলার খোসা ছাড়িয়ে ভিতরের অংশটা দাঁতে ঘষুন ১০ মিনিট পর কুলি করে ফেলুন। তবে এর এসিডিক উপাদান দাঁতের এনামেলের ক্ষতি করতে পারে। তাই সপ্তাহে ২ বার এর বেশি ব্যবহার না করাই ভাল।

৩. বেকিং সোডা

দাঁত ঝকঝকে করতে বেকিং সোডার জুরি নেই। টুথপেস্ট, ১ চামচ বেকিং সোডা, ১/২ চামচ পানি  মিশিয়ে দাঁত মাজলেই দাঁত পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং হলদেটেভাব দূর হবে। সপ্তাহে বার ব্রাশ করুন। পেস্ট ছাড়াও শুধু বেকিং সোডা দিয়ে দাঁত মাজলেও দাঁতের হলদেটে ভাব দূর হয়।

৪. অলিভ অয়েল

অলিভ ওয়েল দাঁত সাদা করার ক্ষেত্রে দারুণ কার্যকরী। সামান্য তুলোর মধ্যে ৩-৪ ফোটা অলিভ ওয়েল নিয়ে দাঁতে ঘষুন। এরপর ব্রাশ করুন দেখুন দাঁত ঝকঝকে হবে।

৫. অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

কফি এবং নিকোটিনের কারণে দাঁতের হলদেটে দাগ দূর করতে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার খুবই কার্যকর একটি উপাদান। প্রথমে অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার দিয়ে দাঁত মাজার পর সাধারণ টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজলেই দাঁত পরিষ্কার ও ঝকঝকে হয়ে যাবে।

৬. শুকনো ফল ও চুয়িংগাম

ড্রাই ফ্রুট বা শুকনো ফল যেমন কিশমিশ ও গেন্ডারী চিবিয়ে খেলে দাঁত সাদা করতে সাহয্য করে। চিনি ছাড়া চুয়িংগাম দাঁতের দাগ দূর করতে চমৎকার উপায়।

৭. সবজি বা গাজর

সবুজ শাক ও গাজর ও ব্রকোলির মতো সবজি দাঁত থেকে দাগ দূর করতে সাহায্য করে। গাজর থেকে পাবেন প্রচুর ক্যারোটিন, ভিটামিন এ, যা চোখ, ত্বক, চুল ভালো রাখবে।

৮. দুগ্ধজাত খাবার

দুধ বা দুগ্ধজাত খাবারে আছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম যা দাঁতের জন্য খুব জরুরি। দই ও পনির দাঁতের এনামেল সুস্থ রাখে।

৯. খাওয়ার পর কিছু নিয়ম

খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করাই সব থেকে ভালো এবং রাতে অবশ্যই দাঁত মাজতে হবে। তবে যারা কফি খেতে ভালোবাসেন এবং যারা ধূমপান করেন তাদের দাঁতে দাগ পড়া খুবই স্বাভাবিক। তাই খাওয়ার পরপরই দাঁত মাজতে না পারলেও তিনমাস অন্তর অন্তর চিকিৎসকের কাছে গিয়ে দাঁত পরিষ্কার করানো যেতে পারে।

ঝকঝকে সাদা দাঁতের হাসির সাথে কি আর অন্যকিছুর তুলনা হয়? লালচে দাগ পড়া দাঁত নিয়ে তো মন খুলে হাসাও মুশকিল। প্রানবন্ত হাসির সৌন্দর্য আরেকটু বাড়িয়ে দেয় মুক্তোর মত সাদা দাঁত। তাই দাঁতের যত্ন নিন ও সুন্দর হাসি উপহার দিন সবাইকে।

আরও জানুন » উচ্চ শব্দে গান শোনার কারণে কানের শ্রবণশক্তি কমে যাচ্ছে – বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা »

Comments

comments